রবিবার১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ৫ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি১লা বৈশাখ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

 দুই বোনকে রান্নার কথা বলে ডেকে নিয়ে  গণধর্ষণ

বাংলা সংবাদ২৪ সংবাদদাতা–  দুই বোনকে রান্নার কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের সুমন ও তার চার সহযোগীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় দর্শনা থানায় করা মামলায় সুমনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি চার আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।  ভুক্তভোগী দুই বোন বর্তমানে পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন। দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাব্বুর রহমান কাজল জানান-আজ বুধবার ভুক্তভোগীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে।

সুত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামের রইচউদ্দিন পুটে বিশ্বাসের ছেলে সুমন (২৬) রান্নার কাজ আছে বলে আলমডাঙ্গা উপজেলার বড়গাংনী ও দামুড়হুদা উপজেলার হাউলী ইউনিয়নের একটি গ্রামের বাবুর্চি আপন দুই বোনকে ফোন করে নিজ বাড়িতে ডেকে নেন।

গত সোমবার রাতে সুমন, একই গ্রামের আলতাব মোল্লার ছেলে মিলন (৩৫), মৃত ইছারদ্দিনের ছেলে সাগর (৪০), নেহালপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে আরিফুল ইসলাম (২৫) ও অজ্ঞাত একজন তাদের রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। পরদিন মঙ্গলবার ভুক্তভোগীরা দর্শনা থানায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।

পরে দর্শনা থানার ওসি মাহাব্বুর রহমান কাজল, ওসি (তদন্ত) শেখ মাহাবুবুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে দিনভর ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে সুমনকে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেন। পুলিশ জানিয়েছে, আজ সংশ্লিষ্ট মামলায় সুমনকে আদালতে তোলা হতে পারে।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। তদন্ত করলে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে আরও ।