রবিবার২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৫ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লায় জেলা প্রশাসকের ভূমি দখল করে বাড়ি নির্মাণ!

আব্দুল্লাহ আল মানছুর,কুমিল্লা:- কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার শুয়াগাজী পশ্চিম বাজারে সরকারের ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত জমি দখল করে বাড়ি নির্মাণ করছেন স্থানীয় এক প্রভাবশালী। সদর দক্ষিণ উপজেলা প্রশাসনিক সকল বাধা উপেক্ষা করে গোপনে রাতের অন্ধকারে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে মাটি ভরাট করে সরকারের খাস সম্পত্তিতে পৃথক দুটি ভবন নির্মাণ করেছেন কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার বট গ্রামের কাদের মিয়ার পুত্র আব্দুল বারেক(৫৫)। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়- সদর দক্ষিণ উপজেলার জোড়কানন পশ্চিম ইউনিয়নের শুয়াগাজী বাজারের পশ্চিমে পাগলির মা খালের পাশে লাল নগর মৌজায় ৬১৩নং দাগে আব্দুল বারেকের জমি রয়েছে।

সে সুবাধে লালনগর মৌজার ৬১৩নং দাগের উপর বিল্ডিং নির্মাণ করার কথা থাকলেও প্রভাবশালী হওয়ায় আব্দুল বারেক ৬১৩নং দাগের পাশে সরকারি খালের অংশে বিল্ডিং নির্মাণ করার চিত্র দেখা গেছে। আব্দুল বারেক তাহার জায়গায় বিল্ডিং নির্মিত করার পরও কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মহোদয়ের প্রায় ৯০০ফুট জায়গা দখল করে এক তলা বিশিষ্ট বাড়ি নির্মাণ করে থাকে। জানা যায় যে, গত ১ বছর পূর্বে গোপনে আব্দুল বারেক রাতের অন্ধকারে পাগলির মা খাল হতে ড্রেজারের মাধ্যমে কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের খাস খতিয়ান জায়গা দখল করে বাড়ি নির্মাণ করে থাকে।

আব্দুর রহিম নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান-প্রভাবশালী আব্দুল বারেক সরকারি জায়গা দখল করে বাড়ি নির্মাণ করে তা বিভিন্ন মানুষের নিকট ভাড়া দিয়ে মাসে ৫০ হাজারের অধিক টাকা আয় করছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সদর দক্ষিণ উপজেলার জোড়কানন পশ্চিম ইউনিয়ন ভূমি অফিসের অধীনে ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত লালনগর মৌজার পাগলির মা খালের পাশে অনেক জমি রয়েছে। আইনানুসারে ওই ভূমির মালিক কুমিল্লার জেলা প্রশাসক। স্থানীয়রা সরকারি জায়গা দখলের বিষয়টি বেশ কয়েকবার জোড়কানন পশ্চিম ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আবুুল খায়ের কে জানালেও তিনি গুরুত্ব দেয়নি।

সরকারিজায়গা দখলের বিষয়ে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাসলিমুন নেছা বলেন-বিষয়টি আমি জানা মাত্রই জোড়কানন পশ্চিম ইউনিয়নের তহশীলদারকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি, বিস্তারিত জেনে দখলদারদের উচ্ছেদ অভিযানের ব্যবস্থা গ্রহন করবো।