সোমবার১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ৬ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নেপালে রাস্তা আটকে প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তা মানলেন না মানুষ

ছবি- সংগৃহীত

বাংলা সংবাদ ডেক্স- ৫ মার্চ মঙ্গলবার সন্ধ্যার। ভিআইপি যাবে, তাই রাস্তা বন্ধ। বিষয়টি এবার আর মানতে পারেননি নেপালের মানুষ। সহ্যের বাইরে চলে যাওয়ায় প্রতিবাদ জানালেন তারা। এমনই এক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবি ভান্ডারি তার বাসভবন মহারাজগঞ্জের শীতল নিবাস থেকে নেপালের সেনা সদর দফতরে যাবেন। এজন্য লাইনচুর থেকে ভদ্রকলি পর্যন্ত সড়ক বন্ধ করে দেয় ট্রাফিক পুলিশ। ৪০ মিনিট পার হয়ে গেলেও চালু হচ্ছে না রাস্তা।

এদিকে মোটরসাইকেল আর গাড়ির লাইন কয়েক কিলোমিটারব্যাপী লম্বা হয়ে গেছে। লেগে গেছে যানজট। সাধারণ মানুষের ধৈর্যের বাধ ভেঙে যায়। প্রথমে মৌখিক প্রতিবাদ, এরপর হর্ন বাজিয়ে আটকে থাকা সব মোটরসাইকেল আরোহীরা বাধা উপেক্ষা করে চলতে শুরু করেন।

অসহায় ভঙ্গিতে তাকিয়ে তাকিয়ে দেখে ট্রাফিক পুলিশ। এ ঘটনাই ভিডিও করেছেন দেশটির একটি অনলাইন গণমাধ্যমের সাংবাদিক।
উঠে আসে রাজধানী কাঠমান্ডুজুড়ে প্রেসিডেন্টের মতো ‘ভিআইপি’দের যাতায়াতের সময় সাধারণ মানুষের ভোগান্তি ও অসুবিধার কথা।

ভিআইপিদের ওপর ঝাড়তে থাকেন নিজেদের ক্ষোভ। একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘নরওয়ে, সুইডেন কিংবা স্পেনের দিকে দেখেন।
তাদের রাষ্ট্রপ্রধানরা রাস্তায় জনগণের সঙ্গে সাইকেল চালিয়ে যান। আর আমাদের দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের মানসিকতার কোনো পরিবর্তন হল না।

বিস্তা জানান, প্রেসিডেন্ট চলে যাওয়ার পরও দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।’ দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ত্যক্ত-বিরক্ত মানুষগুলো। তারা চিৎকার করে বলতে শুরু করেন, ‘এ রাস্তা জনগণের, কোনো প্রেসিডেন্টের জন্য নয়। আমরা তাদের প্রেসিডেন্ট বানাই। এটা যাতায়াতের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা। এ রাস্তা এতক্ষণ ধরে বন্ধ করে রাখা ঠিক নয়।