রবিবার২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৫ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাবা অসুস্থ তাই ছেলে বিয়েতে নিলেন হেলিকপ্টারে

হেলিকপ্টারে করে ছেলের বিয়েতে যোগ দিচ্ছেন বাবা ছবি-সংগৃহীত

বাংলা সংবাদ২৪ ডেস্ক ।। যশোরের বাঘারপাড়ায় প্যারালাইজড, শয্যাশায়ী বাবা । ‘নিজে ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে থেকে পুত্রবধূকে তুলে নেবেন’ এমনই ইচ্ছে তার। আর ছেলে ও পুত্রবধূর ইচ্ছা, ‘ভালোবাসা দিবসে হোক তুলে নেয়ার এই আনুষ্ঠানিকতা।
সবারই ইচ্ছা পূরণ হলো। আড়াইশ’ কিলোমিটার দূর থেকে অসুস্থ মুজিবুর রহমান এলেন হেলিকপ্টারে চড়ে। আর তার ছেলে প্রকৌশলী বর মহিদুল ইসলাম মিশান দেড়শ’ বরযাত্রী নিয়ে এলেন সড়কপথে।
১৪ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বিশ্ব ভালোবাসা দিবসেই হলো তাদের এই তুলে নেয়ার আনুষ্ঠানিকতা। আড়ম্বরপূর্ণ এ অনুষ্ঠানের সাক্ষী হলো যশোরের বাঘারপাড়াবাসী।
এক্সিম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মহিদুল ইসলাম মিশান মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার লেবুতলা গ্রামের মুজিবুর রহমানের ছেলে। ছয়মাস আগে পারিবারিক পছন্দে তিনি বিয়ে করেন যশোরের বাঘারপাড়া সদরের মহিরণ গ্রামের ঠিকাদার জামসেদ খান চঞ্চলের মেয়ে নাদিরা খান জেমিকে। বিয়ের সময় তেমন আনুষ্ঠানিকতা হয় নি।
মিশান ও জেমি সিদ্ধান্ত নেন, বিশ্ব ভালোবাসা দিবসেই অনুষ্ঠান হবে। এ জন্য ছয়মাস ধরেই এদিনটির অপেক্ষায় ছিলেন তারা।কিন্তু অসুস্থ বাবা মুজিবুর রহমান নিজে অনুষ্ঠানে থাকতে চান। তাকে কীভাবে নেবেন ?
বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মিশান দেড়শ লোকের বহর নিয়ে হাজির হন জেমির বাড়িতে। আর দুপর ১টায় হেলিকপ্টারযোগে আসেন মিশানের বাবা মুজিবুর রহমান। বাঘারপাড়া ডিগ্রি কলেজ মাঠে অবতরণ করে হেলিকপ্টার। এ সময় হাজারো উৎসুখ মানুষ সেখানে উপস্থিত হয়। সেখান থেকে হুইল চেয়ারে করে পাঁচ’শ মিটার দূরে অনুষ্ঠানস্থলে যোগ দেন তিনি।