রবিবার২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৫ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কন্টেইনারের নিচে চাপা পড়ে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে গেলেও

চট্টগ্রামে অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলেন ৫জন

লরিটি কাত হয়ে প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে কারটি চ্যাপ্টা হয়ে যায়। ছবি-সংগৃহীত।

চট্টগ্রামের ফৌজদারহাট এলাকায় একটি প্রাইভেটকারের ওপর উল্টে পড়েছে একটি কন্টেইনার লরি। এই ঘটনায় প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে গেলেও অলৌকিকভাবে বেঁচে গেছেন পরিবারের তিন সদস্যসহ এক প্রবাসী।”

;আহতরা হলেন- প্রবাসী আবু বক্কর (৪২), বিমানবন্দরে তাকে নিতে আসা তার বাবা মুছা আহম্মদ (৬৩), বাবু বক্করের মেয়ে আবিদা আক্তার (৬), আবিলা ডাক্তার (৩) ও প্রাইভেটকারের চালক বেলাল (৩২)। তারা সবাই মাথায় আঘাত পেয়েছেন। তবে সবাই আশঙ্কামুক্ত।”

;অনেক বছর পর প্রবাস থেকে আজই দেশে ফিরেছেন ফটিকছড়ি মাইজভান্ডার এলাকার আবু বক্কর। বিমানবন্দরে তাকে নিতে আসেন তার বাবা ও দুই সন্তান। ”

;আজ সকালে চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে নেমে একটি প্রাইভেটকারে বাড়ি ফিরছিলেন তারা। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ অতিক্রম করার সময় হঠাৎ এক স্কুলছাত্র রাস্তা পার হওয়ার জন্য দৌড় দেয়। এ সময় প্রাইভেটকারটির চালক কড়া ব্রেক করে। অন্যদিকে পেছনে থাকা আরেকটি কন্টেইনার লরিও কড়া ব্রেক করে। এ সময় লরিটি কাত হয়ে প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে। এতে কারটি চ্যাপ্টা হয়ে যায়।”

;প্রাইভেটকারে থাকা যাত্রীরা চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন। তারা এসে ক্রেন দিয়ে লরিটি সরিয়ে যাত্রীদের উদ্ধার করে। যাত্রীরা সবাই শঙ্কামুক্ত। ”

;চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক ফিরোজ আলম জানান-আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি লরিটি উল্টে প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে আছে। পরে লরিটি অপসারণ করে প্রাইভেটকারের চার যাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। লরিটি কিছুটা আস্তে পড়ায় আল্লাহর রহমতে যাত্রীরা বেঁচে গেছেন।.

‘রাখে আল্লাহ মারে কে?  এ কথা যে সত‌্য সময় উপস্থিত সকলেই বলতে থাকেন।