বৃহস্পতিবার২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৬ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্বাধীনতা ঘোষণার একমাত্র বৈধ অধিকার বঙ্গবন্ধুর

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

ওবায়দৃল কাদের। ফাইল ছবি।

দেশের স্বাধীনতা ঘোষণার একমাত্র বৈধ অধিকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছিল বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।”

;আজ (মঙ্গলবার) সকালে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে রাজধানীর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।ওবায়দুল কাদের বলেন- স্বাধীনতা ঘোষণার একমাত্র বৈধ অধিকার ছিল বঙ্গবন্ধুর। কারণ- তিনি জনগণের বিপুল ভোটে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ছিলেন। স্বাধীনতা ঘোষণার অন্য কারও বৈধ অধিকার ছিল না। কাজেই অনেককেই ঘোষক দাবি করা হয়, তারা ছিলেন পাঠক। পাঠক আর ঘোষক এক কথা না।”

;বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে ৭ মার্চ নিষিদ্ধ ছিল উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘যে ভাষণ ইউনেস্কো পৃথিবীর অন্যতম সেরা ভাষণের স্বীকৃতি দিয়েছে, সেই ৭ মার্চের ভাষণ তারা নিষিদ্ধ করেছিল। মুক্তিযুদ্ধে চেতনায় তাদের ন্যূনতম বিশ্বাস আছে বলে আমরা মনে করি না।”

;আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র ধ্বংস করেছে বলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের দাবির বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপিই গণতন্ত্র ধ্বংস করেছে। আর শেখ হাসিনা মেরামত করেছে।”

;গণতন্ত্র রাতারাতি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পাবে না জানিয়ে মন্ত্রী আরও বলেন-দেশে যতটুকু গণতন্ত্র আছে তা শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই হয়েছে। ক্ষমতার আমলটা বিএনপি কীভাবে চর্চা করেছে সেটা দেখতে হবে। এটা এমন একটা দল, যাদের নিজেদের ঘরে গণতন্ত্র নেই। তারা দেশে গণতন্ত্র কীভাবে প্রতিষ্ঠিত করবে? গণতন্ত্র আওয়ামী লীগই প্রতিষ্ঠা করে।”

;এ দেশ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এসেছে। এ দেশ গড়ব আমরা। বিএনপি দেশ ধ্বংস করেছে। আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মেরামত করছি- যোগ করেন ওবায়দুল কাদের।”

;এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য- মতিয়া চৌধুরী, ড. আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, শাজাহান খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবু-উল আলম হানিফ, হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আফজাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. আব্দুস সবুর, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল শামীম, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান উপস্থিত ছিলেন।,