রবিবার২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৫ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মসজিদের টাকা আত্মসাৎ! নিউজ করলে মামলা!

ফাতেমানগর জামে মসজিদ।ছবি-সংগৃহীত।

বাংলা সংবাদ২৪ সংবাদদাতা– খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার ফাতেমানগর জামে মসজিদ কমিটির সাবেক সভাপতি সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে প্রায় সাড়ে ২৬ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ওই মসজিদের কমিটির বর্তমান সভাপতি নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে গতকাল শনিবার পানছড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন “

’বিষয়টি নিয়ে রিপোর্ট করলে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করার হুমকি দেন সাবেক সভাপতি সালাউদ্দিন। মসজিদটির বর্তমান কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম অভিযোগ করেন, সাবেক সভাপতি সালাউদ্দিন অবৈধ ভাবে দীর্ঘ সাত বছর মসজিদ কমিটির দায়িত্বে ছিলেন। এ সময় মসজিদের আয়ের উৎস থেকে প্রায় সাড়ে ২৬ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন “

”গত ১৯ মার্চ শুক্রবার মসজিদের হিসাব-নিকাশ ও এক সালিশে টাকা আত্মসাতের বিষয়টি প্রমাণিত হয়। সালিসে এক পার্যায়ে ১২ লাখ টাকা ফেরত দেওয়ার কথা জানালেও পরক্ষণেই জানিয়ে দেন মসজিদের কোনো টাকা তার হাতে নেই।”

বর্তমান সভাপতি খোরশেদ আলম বলেন, সাবেক সভাপতির পরিবারে একসময় নুন আনতে পান্তা ফুরানোর মতো অবস্থা ছিল। কিন্তু মসজিদের টাকা দিয়ে বিভিন্ন ব্যবসা করে তিনি আজ কোটিপতি। এখন মসজিদের টাকা ফেরত দিতে চাচ্ছে না “

’তার দাপটে সমাজের সাধরণ মানুষ অতিষ্ঠ। তার অপকর্মের কথা কেউ বললেই তাকে মারপিটসহ প্রাণনাশের হুমকি দেন। এলাকার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, মসজিদের টাকা ফেরত না দেওয়ার কৌশলে নিজের ভাইকে তাদের পারিবারিক কলহে রক্তাক্ত করে উল্টো সমাজের নিরপরাধ মানুষকে মামলায় ফাসাঁনোর চেষ্টা করছে।”

’স্থানীয় বাসিন্দা সোহাগ মজুমদার জানান, সাবেক সভাপতি সালাউদ্দিনের দাপটে সাধারণ মানুষ অসহায়। রাজনীতিতে বিএনপি করলেও কিছু আওয়ামী লীগ নেতার আশ্রয়-প্রশ্রয়ে তার দাপটের অন্ত নেই “

এ ব্যাপারে সালাউদ্দিন সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মসজিদ কমিটির ক্যাশিয়ার মারা গেছে হিসাবটা কে দেবে? আমার ভাইয়ের মৃত্যুর পর এবং ঠিকাদারী করে আমি টাকার মালিক হয়েছি। মসজিদের কোন  টাকা আত্মসাৎ করিনি। সাংবাদিককে হুমকি দিয়ে সালাউদ্দিন বলেন, “এ ব্যাপারে নিউজ করলে মামলা করে দেবো। ”