বুধবার২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছাত্রলীগ নেতার হাতের কবজি কেটে সন্ত্রাসীদের উল্লাস

বাংলা সংবাদ২৪ সংবাদাতা– পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে করে ছাত্রলীগ নেতা ও কলেজছাত্র শুভ শীলের (২০) ডান হাতের কবজি কেটে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার হাসপাতাল রোডের ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় শুভকে একা পেয়ে এ নৃশংস ঘটনা ঘটায় দুর্বৃত্তরা। সঙ্কটজনক অবস্থায় শুভকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পর আশঙ্কাজনক অবস্থায় বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আহত শুভ পৌর শহরের ৩ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। মঠবাড়িয়া সরকারি কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী তিনি ।

হাসপাতাল ও থানা সূত্রে জানা যায়, শুভ শীল দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামের শ্যামল চন্দ্র শীলের (কালাচাদ) ছেলে। স্থানীয় কতিপয় যুবকের সঙ্গে শুভর দীর্ঘদিনের বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে হাসপাতাল রোডের ব্রিজসংলগ্ন এলাকায় শুভকে একা পেয়ে তাকে আটকে বিদ্যুতের খুটির সঙ্গে ঠেকিয়ে স্থানীয় সাদির, নাইম, কোরবান, তানভির মল্লিক, ও নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র দিয়ে ডান হাতের কবজি কুপিয়ে বিচ্ছিন্ন করে উল্লাস করে।

ঘটনার সময় ব্রিজসংলগ্ন সড়কে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। এলাকাবাসী ওই কলেজছাত্রকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এদিকে হামলার প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ যুবকরা পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে। প্রতিবাদে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মেয়র রফিউদ্দিন আহম্মেদ ফেরদৌসের বাসায় এবং সরকারি গাড়িতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে পুলিশের বাধায় বিক্ষোভকারীরা চলে যায়।

পৌর মেয়র রফিউদ্দিন আহম্মেদ ফেরদৌস এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, ছাত্রলীগ নেতা শুভর কবজি কাটার ঘটনা অত্যন্ত নৃশংস। এর জের ধরে আমার বাসায় মিছিল দিয়ে ইট পাটকেল নিক্ষেপ, গাড়িতে হামলার ঘটনা, শান্ত মঠবাড়িয়াকে অশান্ত করার অপচেষ্টা করা হয়েছে।

উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। হামলাকারীরা পৌর ছাত্রলীগের নামধারী কর্মী। প্রকৃত অপরাধীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।
 ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)মঠবাড়িয়া থানার  আ.জ.ম মাসুদ্দুজ্জামান মিলু বলেন, একটি মোবাইল নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে আহত ছাত্রের পরিবারের পক্ষ থেকে ।