বুধবার২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাবরি মসজিদ মামলা নতুন মোড়

বাংলা সংবাদ২৪ ডেক্স– বাবরি মসজিদ তথা অযোধ্যার রাম জন্মভূমি নিয়ে ঘটনা নতুন নয়। আগে থেকেই অনেক ঘটনা ঘটেছে এটি নিয়ে। কোর্টে চলছে মামলা। কিছু দিন আগেও বিজেপি নেতা সাক্ষী মহারাজ মামলা নিষ্পত্তি হ্ওয়ার আগেই বাবরি মসজিদের উপর রাম মন্দির নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন।

বাবরি মসজিদ মামলার চূড়ান্ত বায় দেয়নি ভারতের সুপ্রিম কোর্টে। তার আগেই নতুন মোড় নিল বাবরি মসজিদ মামলা। মুসলিম পক্ষের একাংশ জানান, অযোধ্যা মামলায় জমির দাবি কিছুতেই ছাড়বেনা তারা। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড যে প্রস্তাব দিয়েছে বলে সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত হয়েছে, তাতে পুরুপুরি অবাক তারা।

সুন্নি সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ড যে ঘোষনা দিয়েছে তা ভূয়া বলে দাবি করেন। তারা বলেন শীর্ষ আদালত নিযুক্ত মধ্যস্থতাকারী কমিটির সঙ্গে তাদের কোনও সমঝোতাই হয়নি যদি মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে বোর্ডের কোনও সমঝোতা হলেও, তা সংবাদমাধ্যমে কীভাবে ফাঁস হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তারা।

অযোধ্যা মামলায় মুসলিম পক্ষের আবেদনকারী এম সিদ্দিকের আইনজীবী এজাজ মকবুল বলেন, ইচ্ছাকৃত ভাবেই বিষয়টি ফাঁস করা হয়ে থাকতে পারে বলে দাবি করেন। তিনি বলেন, সুন্নি সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ড জমির দাবি তুলে নিতে রাজি হয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু বিষয়টি জানা জানি হলো কিভাবে? কারণ সুপ্রিম কোর্টে মামলার শুনানি চলাকালীনই সমঝোতা প্রক্রিয়া শুরু হয়ে থাকবে। তাই হয় মধ্যস্থতাকারী কমিটিই নয়ত বা নির্বাণী আখড়া বিষয়টি ফাঁস করেছে।

এর আগে, বুধবার বন্ধ খামে একটি রিপোর্ট জমা দেয় সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত মধ্যস্থতা কমিটি। সুন্নি সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ড ওই রিপোর্টে জানান বিতর্কিত জমির দাবি ছাড়তে রাজি হয়েছে । শ্রীরাম পঞ্চুর মাধ্যমে একটি চিঠি দিয়ে নিজেদের মতামত জানিয়েছে তারা। কিন্তু বিবৃতি প্রকাশ করে সেই দাবি খারিজ করেন অযোধ্যা মামলায় মুসলিম পক্ষের আবেদনকারী এম সিদ্দিকের আইনজীবী এজাজ মকবুল।

তিনি বলেন, সংবাদমাধ্যমে ফাঁস হওয়া রিপোর্টে সমঝোতার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু এই ধরনের কোনও প্রস্তাবে আমরা রাজি নই। যে পদ্ধতিতে মধ্যস্থতা হয়েছে এবং মীমাংসার মাধ্যমে জমির দাবি ছেড়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে, তাতেও একমত নই আমরা।