শনিবার২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যে শাড়ি গোসল করলেও শুকনা থাকে

ছবি -সংগৃহীত

ডেক্স রিপোট-সম্পতি এলাহাবাদে অনুষ্ঠিত কুম্ভমেলার বসন্ত পঞ্চমী তিথিতে ‘সরস্বতী স্নান’র দিন পুণ্যার্থী নারীদের মধ্যে বিতরণ করা হয় এ শাড়ি। এ শাড়ির উপরে রয়েছে একটি ওয়াটারপ্রুফ কোটিং। ফলে বহুবার গোসল করলেও এ শাড়ি ভিজবে না। লেপ্টে যাবে না শরীরের সঙ্গে। দেখতে সাধারণ শাড়ির মতোই, বাসন্তি রঙের জমি ও সবুজ পাড়।

এ ধরনের উদ্যোগে অনেক সাধুবাদ পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। কারণ নারীরা পুণ্য অর্জন করতে আসেন, পবিত্র গোসলে তাদের দেহ ভিজে যায়। এরপর অনেক দ্বিধা নিয়ে কৌতূহলী চোখ পেরিয়ে তাদের পৌঁছতে হয় কাপড় পাল্টানোর স্থানে। তাই এ বছর কুম্ভমেলায় নারীদের পোশাক পাল্টানোর ব্যবস্থাও করেছিল ‘হামাম।

ওয়াটারপ্রুফ শাড়ির উদ্যোক্তা চিফ ক্রিয়েটিভ অফিসার সুকেশ নায়েক বলেন, ‘অজস্র লোলুপ দৃষ্টির সামনে লজ্জিত না হয়ে যাতে নারীরা নিশ্চিন্তে পুণ্যস্নান করতে পারেন, সে জন্যই আমাদের এ উদ্যোগ।’ জানা যায়, এ ধরনের গোসলে সবচেয়ে বেশি মর্যাদাহানী হয় নারীদের। পানিতে ভেজা কাপড় শরীরে লেপ্টে থাকে।

পুণ্যস্নানে ব্যস্ত নারীদের এ স্বাভাবিক দৃশ্য আদৌ স্বাভাবিক থাকে না। দুষ্টুবুদ্ধির কিছু মানুষের কারণে সে ছবি হয়ে যায় অস্বস্তিকর। দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে চলে আসা এ সমস্যার সমাধান করল বিশেষভাবে তৈরি ‘ওয়াটার প্রুফ শাড়ি’।