শনিবার২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৪ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির চেয়ারম্যান

 ড. মোঃ সবুর খানকে ভারতের কেআইআইটি কর্তৃক  বিশেষ সম্মাননা

কেআইআইটি এর প্রতিষ্ঠাতা ভারতীয় লোকসভার সদস্য ডঃ অচ্যুতা সামন্ত ডিআইইউ  প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ডঃ মোঃ সবুর খানের হাতে স্মারক তুলে দিচ্ছেন।

ভারতের কলিঙ্গ ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলজি’র (কেআইআইটি) এর দূরদর্শী প্রতিষ্ঠাতা এবং ভারতীয় লোকসভার সদস্য ডঃ অচ্যুতা সামন্ত ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ডিআইইউ) প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ডঃ মোঃ সবুর খানকে একটি বিশিষ্ট সম্মাননা প্রদান করেছেন ।”

;গত ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ তারিখে কেআইআইটি প্রাঙ্গনে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা স্মারকটি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ডঃ মোঃ সবুর খানের হাতে তুলে দেন কলিঙ্গ ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলজি’র (কেআইআইটি) এর দূরদর্শী প্রতিষ্ঠাতা এবং ভারতীয় লোকসভার সদস্য ডঃ অচ্যুতা সামন্ত। স্মারক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলিঙ্গা ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলজি (কেআইআইটি) এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ডঃ সরঞ্জিত সিং এবং অলিউডের ভারতীয় অভিনেতা সব্যসাচী মিশ্র।

কেআইআইটি -তে ডঃ সবুর খানের সাম্প্রতিক সফরের সময়, শিক্ষার ক্ষেত্রে তার অনুকরণীয় নেতৃত্ব এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বৃদ্ধির প্রতিশ্রæতির জন্য প্রশংসার একটি উল্লেখযোগ্য মুহূর্ত চিহ্নিত করে তাকে এই মর্যাদাপূর্ণ স্বীকৃতি দেওয়া হয় । ”

;এ বিশেষ সম্মাননা প্রদান করায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ডিআইইউ) প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ডঃ মোঃ সবুর খান কলিঙ্গা ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলজি (কেআইআইটি) এর  প্রতিষ্ঠাতা ডঃ অচ্যুতা সামন্তের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সফরের অংশ হিসেবে কলিঙ্গ ইনস্টিটিউট অফ  সোস্যাল সাইন্স এবং কলিঙ্গ ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সাইন্সের ৬০০০ এর বেশি মহিলা কর্মী সদস্যের প্রাণবন্ত অংশগ্রহণে পাটাত্তন মিনি-ম্যারাথন উদযাপনে যোগ দেন। এই বিশেষ দিনটি, আনন্দ এবং উদযাপনের জন্য নিবেদিত, অংশগ্রহণকারীদের প্রাণবন্ত শক্তি প্রদর্শন করে। পাশাপাশি, কেআইআইটি -এর প্রতিষ্ঠাতা ড. অচ্যুতা সামন্ত ডিআইইউ’র ২০ জন ছাত্র এবং কর্মীদের অভিনন্দন শংসাপত্র প্রদান করেন যারা ২০-২৬ জানুয়ারী এক সপ্তাহের কেআইআইটি – ডিআইইউ’’র স্বেচ্ছাসেবক বিনিময় প্রোগ্রামে যোগদান করেছিলেন।

ডঃ খানের স্বীকৃতি শুধুমাত্র তার ব্যক্তিগত কৃতিত্বেরই প্রমাণ নয় বরং এটি (কেআইআইটি এবং ডিআইইউ-এর মধ্যে দৃঢ় সম্পর্ককে প্রতিফলিত করে। ২০১৮ সালে, (কেআইআইটি বিশ্ববিদ্যালয় অসামান্য নেতৃত্ব এবং শিক্ষা, ব্যবসা এবং প্রযুক্তিতে অবদানের জন্য ১৪ তম বার্ষিক সমাবর্তনে ডক্টর সবুর খানকে সম্মানসূচক ডক্টরেট (ডি লিট) প্রদান করে।