মঙ্গলবার১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১০ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কচুয়ায় মনস্তাত্বিক রোগে আক্রান্ত হয়ে আধা ঘন্টায় পঞ্চাশ শিক্ষাথী হাসপাতালে

ছবি-সংগৃহীত

চাঁদপুরের কচুয়ায় দুইটি স্কুলে একের পর এক অজ্ঞান হয়ে পড়েছে পঞ্চাশ জন ছাত্রী। আজ মঙ্গলবার(৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে কচুয়া উপজেলার নন্দনপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে। অসুস্থ শিক্ষার্থীদের তাৎক্ষণিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রাথমিকভাবে তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয় এবং চিকিৎসকরা বলছেন তারা মনস্তাত্বিক রোগে আক্রান্ত।
শিক্ষার্থীদের স্বজনরা জানান, এসএসসি পরীক্ষা থাকার কারণে বিকেলে ওই বিদ্যালয়ে বিভিন্ন শ্রেণির পাঠ করা হচ্ছিল। এসময় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে তাদের দেখাদেখি আধা ঘণ্টার মধ্যে অন্যরাও অসুস্থ হয়ে পড়ে। এমন পরিস্থিতিতে দ্রুত তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।
হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মাসুদ রানা জানান, মূলত একজনের দেখা দেখির কারণে অন্যরাও অসুস্থ হওয়ার এমন রোগকে গণ মনস্তাত্বিক অসুস্থতা বলে। ইতিমধ্যে অসুস্থদের অনেকেই সুস্থ হওয়ার পর তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।
বিদ্যালয়ের প্রধান হারাধন চন্দ্র ভৌমিক জানান, প্রথমে পাশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ফারিয়া সুলতানা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। এমন দৃশ্য অন্যরা দেখার পর তারাও জ্ঞান হারাতে শুরু করে। এদের মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৪ এবং উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৬ জন শিক্ষার্থী।

এই ঘটনার সংবাদ পেয়ে অসুস্থদের খোঁজ খবর নিতে হাসপাতালে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নীলিমা আফরোজ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুমন দে এবং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইদুর রহমান।

এদিকে, রাতে জেলা সিভিল সার্জন (ভারপ্রাপ্ত) ডা. মাহবুবুর রহমান কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি বলেন, গণ মনস্তাত্বিক অসুস্থতা জনিত কারণে আতঙ্কিত হবার কিছু নেই।