শনিবার২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ড. ইউনূসের গ্রামীণ আমেরিকার দূত জেনিফার লোপেজ

গ্রামীণ আমেরিকার ন্যাশনাল অ্যাম্বাসেডর হয়েছেন হলিউড কেন্দ্রিক ল্যাটিন গায়িকা, অভিনেত্রী ও ফ্যাশন আইকন জেনিফার লোপেজ। ড. মুহাম্মদ ইউনূসের প্রতিষ্ঠানে নতুন দায়িত্ব নিয়ে জেলো নামে পরিচিতি এ সেলিব্রিটি নিজের ফেসবুক পেজে অনুভূতি ভাগাভাগি করেছেন। তিনি লেখেন এই দেশে ল্যাটিনো হয়ে থাকা নিয়ে আমি সবসময়ই গর্ববোধ করি।”

;২০৩০ সালের মধ্যে স্বল্প আয়ের ল্যাটিনো উদ্যোক্তাদের জন্য জীবন-পরিবর্তনকারী ১৪ বিলিয়ন ডলারের সম পরিমাণ ঋণের মূলধন গড়ার লক্ষ্যকে ত্বরান্বিত করতে গ্রামীণ আমেরিকার সাথে অংশীদারত্বের সুযোগ পেয়ে আমি সম্মানিত এবং যারপরনাই কৃতজ্ঞ। আরও বলেন- আমরা যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে ৬ লাখেরও বেশি নারীর ক্ষমতায়ন করবো।”

;আমরা কর্মসংস্থান এবং নেতৃত্বের জন্য সুযোগের পথ বিনির্মাণ করছি। এই জনগোষ্ঠীর প্রচণ্ড এক শক্তি রয়েছে। ব্যবসার ক্ষেত্রে নারীদের জন্য সমতা, অন্তর্ভুক্তি এবং সুযোগ তৈরি করা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। সম্প্রতি এবিসি টেলিভিশনে প্রচারিত ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’য় হাজির হন জেনিফার। সেখানে জানান- কেন তিনি পরবর্তী ৮ বছরে ৬ লাখ ল্যাটিনা উদ্যোক্তাদের ছোট ব্যবসা গড়ে তুলতে গ্রামীণ আমেরিকা কর্তৃক ১৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ক্ষুদ্রঋণ প্রদানের পরিকল্পনাকে সাহায্য করছেন।”

;তিনি বলেন- সত্যি বলতে আমি (উদ্যোক্তাদের জন্য) আমেরিকার কাঠামোটা পরিবর্তন করতে চাই। বিশেষ করে ল্যাটিনো নারীদের জন্য। ওই অনুষ্ঠান আমন্ত্রিত ছিলেন গ্রামীণ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট এবং সিইও আন্দ্রেয়া জুং। ”

;নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস ২০০৮ সালে গ্রামীণ আমেরিকা প্রতিষ্ঠা করেন। এই অলাভজনক ক্ষুদ্রঋণ সংস্থা দরিদ্র নারীদের ছোট ব্যবসা গড়ে তুলতে সাহায্য করছে। সংস্থাটি ক্ষুদ্রঋণ, প্রশিক্ষণ এবং সহায়তা প্রদান করে থাকে। ”

;lএখন পর্যন্ত গ্রামীণ আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ২৩টি শহরে ১ লাখ ৫০ হাজা ৮০০ জন নারীকে সেবা দিয়েছে। সংস্থাটি ২.৬ বিলিয়ন ডলার সমপরিমাণ ঋণ বিতরণ করেছে এবং ১ লাখ ৫৭ হাজার চাকরির ব্যবস্থা করে সেগুলো বজায় রাখতে সাহায্য করেছে। ৯ জুন গ্রামীণ আমেরিকার সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্ত হয়েছেন জেনিফার লোপেজ।;