রবিবার২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৫ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

 বিয়ের এক সপ্তাহ- সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্কুলছাত্রী

অভিযুক্ত সাব্বির হোসেন- ছবি : সংগৃহীত

.নেত্রকোনার মদন উপজেলায় ‘ধর্ষণে’ স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর ঘটনা ধামাচাপা দিতে আদালতে এফিডেভিট করে বিয়ে নাটকের অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, বিয়ের সপ্তাহ না যেতেই সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা মেয়েটিকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়।”

;এ ঘটনায় অভিযুক্ত সাব্বির হোসেন বাপ্পীকে প্রধান আসামি করে মদন থানায় মামলা করেছেন মেয়ের বাবা। সাব্বির বাড়রী পশ্চিমপাড়া গ্রামের হিরন মিয়ার ছেলে। ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করার তথ্য নিশ্চিত করেছেন মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ফেরদৌস আলম।”

;তিনি জানান- হিরন নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা গেছে-সাব্বির কেন্দুয়া কলেজে একাদশ শ্রেণিতে পড়ে। বছর দেড়েক আগে ওই কিশোরীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক হয়।”

;এরপর বিয়ের প্রলোভনে মেয়েটিকে একাধিকবার ধর্ষণ করে সাব্বির। এক পর্যায়ে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। বিষয়টি সাব্বিরের পরিবারকে জানালে তারা কোর্টে গিয়ে এফিডেভিট করে বিয়ে দিয়ে মেয়েটিকে ঘরে তোলেন।”

;ঘটনার সপ্তাহ খানেক পর ছেলেকে বাড়ি থেকে সরিয়ে মেয়েটিকে তাড়িয়ে দেয় সাব্বিরের পরিবার।,