শুক্রবার২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ৭ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৫ হিজরি৭ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুরে  চিকিৎক ও পুলিশসহ আরো ৪ করোনা শনাক্ত : আক্রান্ত বেড়ে ৭১

নিজস্ব সংবাদদাতা- চাঁদপুরে আরো ৪জনের নমুনা টেস্টের রিপোর্ট করোনা পজেটিভ এসেছে। এর মধ্যে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন স্বাস্থ্যকর্মী (বাড়ি ফরিদগঞ্জ), কচুয়ার সাচার পুলিশ ফাঁড়ির একজন পুলিশ কনস্টেবল এবং মতলব আইসিডিডিআরবি (কলেরা) হাসপাতালের একজন চিকিৎসক ও পূর্বে আক্রান্ত হিসাবরক্ষকের এক ছেলে রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৭১জন।

জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রোববার জেলার মোট ২৪জনের নমুনা টেস্টের রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ২জন পজেটিভ, ২২জনের রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ। এছাড়া মতলব আইসিডিডিআরবি হাসপাতালের আরো ২জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আইসিডিডিআরবি’র নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ঢাকা তাদের টেস্ট করালেও তারা মতলবে অবস্থান করায় জেলার পরিসংখ্যানে তারা অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন।

সূত্র আরো জানায়, এ নিয়ে চাঁদপুর জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১জন। এর মধ্যে মৃত ৪জন, সুস্থ হয়েছেন ১৫জন। বাকী ৫২জন চিকিৎসাধীন। চাঁদপুরে জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ৭১জনের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ৩৯, ফরিদগঞ্জে ৮, মতলব উত্তরে ৬, হাজীগঞ্জে ৫, মতলব দক্ষিণ ৫জন, কচুয়ায় ৪, হাইমচরে ২ ও শাহরাস্তিতে ২জন।

সিভিল সার্জন ডা. সাখাওয়াত উল্লাহ রোববার দুপুরে এক প্রেস নোটে জানান, চাঁদপুর থেকে আরো ১০৪জনের নমুুনা প্রেরণ করা হয়েছে করোনা টেস্টের জন্য। এ নিয়ে মোট প্রেরণকৃত নমুনার সংখ্যা দাঁড়ালো ১১১০। এর বিপরীতে রিপোর্ট এসেছে ৯৫৮টি। রিপোর্ট অপেক্ষমান ১৫২টি।

তিনি জানান, চাঁদপুর জেলায় এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা ৫৭জন। এর মধ্যে ইতিমধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৫০জন। বর্তমানে আইসোলেশনে রোগীর সংখ্যা ৭জন। জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির সংখ্যা ৩৬৬৩জন। এর মধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৩৫৯৯জন। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৬৪জন।