বৃহস্পতিবার২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৯শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জানুন চায়ের বিকল্প ব্যবহার

বাংলা সংবাদ২৪ হেলথ ডেক্স– চা মানেই চাঙ্গা হয়ে উঠার মুল মন্ত্র। চায়ের কাপে চুমুক মানেই মন তরতাজা। চা খাওয়ার জন্য তো আছেই, টুকটাক ঘরোয়া কাজেও লাগানো যায় ………..

ফ্রিজের দুর্গন্ধ তাড়ায়—–অনেকসময় ফ্রিজে বেকিং সোডা রেখেও কাজ হয় না। তা হলে এবার ফ্রিজে টি-ব্যাগ রেখে দিন, দেখবেন সব গন্ধ শুষে নিয়েছে। এটি ফ্রিজে বাসি খাবারের দুর্গন্ধ তাড়াতে সাহায্য করে।

কাঠের আসবাব পরিষ্কার—-চা পাতায় থাকা হালকা বাদামি রং আর তার ভেষজ গুণাগুণ কাঠের আসবাবের চকচকে ভাব ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। চা পাতা ভালো করে ফুটিয়ে নিন। তারপর ঠান্ডা হয়ে গেলে তাতে একটা কাপড় ভিজিয়ে নিয়ে ভালো করে কাঠের আসবাবগুলো পরিষ্কার করে নিন।

জিনিস-পত্রের মরচে দূর করে—-চায়ের ট্যানিক অ্যাসিড মরচে দূর করতে কাজে লাগে। বাসনপত্র বা অন্য কোনো জায়গায় যদি মরচে পড়ে, ফুটন্ত পানিতে কয়েকটি টি-ব্যাগ দিয়ে শক্তিশালী একটা মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এবার মরচে পড়া জায়গাটা এতে ডুবিয়ে রাখুন। আট-দশ ঘণ্টা ডুবিয়ে রাখলে মরচে দূর হবে।

আয়না পরিষ্কারক—-চাপাতা ব্যবহার করে ঘরে থাকা আয়নাটি চটপট পরিষ্কার করে ফেলতে পারেন। আয়নায় ধুলো জমুক বা দাগছোপই পড়ুক, কালো চায়ের পাতা ভালো করে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে তাতে কাপড় ভিজিয়ে তা দিয়ে মুছে নিলেই আয়না দেখাবে ঝকঝকে।

মাংস ম্যারিনেটে—–শক্ত মাংস নরম করতে চা কিন্তু দারুণ কাজে লাগে। চার চামচ চাপাতা গরম ফুটন্ত পানিতে ঢেলে দিন, তারপর মাংস ম্যারিনেট করার সময় ওই পানি দিয়ে দিতে পারেন। দেখবেন রান্না করার পর মাংস কী সুন্দর নরম হয়ে গেছে।

সহজেই সুগন্ধ ছড়ায়—-যে কোনো দুর্গন্ধ দূরীকরণে চা বেশ কাজের। হাত থেকে মাছের গন্ধ তাড়াতে চা পাতার পানি দিয়ে হাত ধুয়ে দেখতে পারেন। আবর্জনা বা নোংরা জিনিসের গন্ধ, বাড়ির নোংরা করে এমন পোষ্য প্রাণীর গন্ধ দূর করতেও চা দারুণ কাজে দেয়। যাদের পায়ে মোজা পরলে দুর্গন্ধ তৈরি হয় তারা চা পাতার সাহায্য নিতে পারেন। চায়ের পাতা ভালো করে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে সেই পানি দিয়ে পা ধুয়ে মুছে নিন। গন্ধ থাকবে না। এ ছাড়া ওয়্যারড্রবের ড্রয়ার বা পুরনো বইয়ের গন্ধ দূর করতে হার্বাল টি-ব্যাগ সেখানে রেখে দিতে পারেন

গাছের সার হিসেবে—-চায়ের সেদ্ধ পাতা গাছের জন্য ভীষণ ভালো সার, বিশেষ করে গোলাপ গাছের জন্য এর চেয়ে উপকারী উপাদান নেই বললেই চলে। ফার্ন, সাইট্রাস, গার্ডেনিয়া ইত্যাদিসহ সব গাছেই চা পাতা গাছের সার হিসেবে স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যবহার করতে পারেন। চা পাতার পানি তো বটেই, তাছাড়া এমনি চা পাতাও সার হিসেবে দিতে পারেন গাছের গোড়ায়।