বৃহস্পতিবার২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ১৯শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ফয়সাল-আলিফ দম্পতি গিনেস বুকে নাম লেখালেন

ফয়সাল-আলিফ দম্পতির পুরোনো ছবি।

বাংলা সংবাদ২৪ ডেস্ক– বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যান্ড পারফর্মেন্স রকিং থাউজেন্ড। আড়াই হাজার সংগীতশিল্পী নিয়ে চলতি বছর এটি অনুষ্ঠিত হয় দুবাইয়ে। বিগত ৩০ অক্টোবর গ্লোবাল ভিলেজের আয়োজনে এটি অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্বের ৭৯ দেশের মধ্যে লাল-সবুজের প্রতিনিধিত্ব করে গিনেস রেকর্ড বুকে স্থান করে নিয়েছেন বাংলাদেশের কণ্ঠশিল্পী আলিফ আলাউদ্দীন ও লিড গিটারিস্ট কাজী ফয়সাল আহমেদ।

আলিফ আলাউদ্দীন জানান- এর আগে ২০১৫ সালে ইতালিতে এই আসরটি হয়েছিল। সেবার এতে অংশ নেন এক হাজার শিল্পী। আর এবার এতে ছিলেন আড়াই হাজার পারফর্মার। যার ফলে পুরো আয়োজনটি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে স্থান করে নেয়। গ্লোবাল ভিলেজের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে এ আয়োজনটি হয়েছে। তিনি আরও জানান, ইতিমধ্যেই তারা অনলাইনে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের সার্টিফিকেট পেয়েছেন। শিগগিরই মূল কপিও হাতে পাবেন।

আর্টসেল ব্যান্ডের গিটারিস্ট কাজী ফয়সাল আহমেদ বলেন, এ বছর ওরা (গ্লোবাল ভিলেজ) বড় আকারে আয়োজন করেছে। যখন তারা মেসেজটি পাঠালো, তখন আলিফও আমার সঙ্গে জয়েন করে। তারা আমাদেরকে আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ জানিয়ে ভিডিও পাঠাতে বলে। তিনি জানান, এবারের আয়োজনে ৯৬০ জন গিটারিস্ট ও সাড়ে ৬০০ কণ্ঠশিল্পী অংশ নিয়েছেন।

সমবেত কণ্ঠে তারা অংশ নেন চারটি গানে। গানগুলো হলো- উই ইউল রক ইউ, রকিং অলওভার দ্য ওয়ার্ল্ড, হোয়াট আ ওয়ান্ডারফুল ওয়ার্ল্ড ও ইউ গেট হোয়াট ইউ গিভ।আলিফ আলাউদ্দীন বলেন, সমবেত সংগীতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ দিক হলো, সবার কণ্ঠ ও সংগীত একসঙ্গে মিলতে হবে। প্রতিটি নোট স্ক্যান করা হয়। আমরা দেড় মাস সময় নিয়ে চারটি গান অনুশীলন করেছি। তারপর অনলাইনে ভিডিওটি পাঠাই। অনলাইনেই পুরো আয়োজনটি হয়েছে ।